সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ১২:৪৬ অপরাহ্ন

আজ জিতলেই সিরিজ বাংলাদেশের

অনলাইন ডেক্স :
  • প্রকাশিত সময় : শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৬ পাঠক পড়েছে

বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে আজ। মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে বেলা সাড়ে ১১টায় ম্যাচ শুরু হবে। এই ম্যাচ জিতলেই সিরিজ জয় হয়ে যাবে বাংলাদেশের। প্রথম ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে জিতে ১-০ ব্যবধানে সিরিজে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। আজ জিতলে সিরিজে ব্যবধান হবে ২-০। এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করে নেবে বাংলাদেশ।

দীর্ঘ ১০ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলতে নেমেই জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এ জয় দলকে আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে। প্রথম ওয়ানডেতে ব্যাটসম্যানদের নৈপুণ্য আহামরি ছিল না। যে রকম চাওয়া হয়েছে তা পূরণ হয়নি। তবে এতদিন পর খেলতে নেমে ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে পারেননি। ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরবেন বলেই আশা করা হচ্ছে। আপাতত জয় দিয়ে নতুন বছরটাও যে শুরু করা গেল তাতেই সন্তুষ্টি মিলছে। সেইসঙ্গে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ওয়ানডেতে আরেকটি জয় বাড়ল বাংলাদেশের। জয়ের সংখ্যা বাড়ছে। ১৬টি জয় হয়ে গেছে। দুই দলের মধ্যকার ৩৯ ম্যাচের মধ্যে ২১টিতে হেরেছে বাংলাদেশ। ২টি ম্যাচের রেজাল্ট হয়নি। আজ দ্বিতীয় ওয়ানডে শেষে ২৫ জানুয়ারি চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে।

এই সিরিজ দিয়ে দুই দল ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের সুপার লীগে খেলাও শুরু করেছে। ২০২৩ সালের বিশ্বকাপে সরাসরি খেলতে হলে সুপার লীগে সেরা সাত দলের একটি হতে হবে। বাংলাদেশ সেই লীগের শুরুটা জয় দিয়েই করল। ১০ পয়েন্ট পেয়েছে বাংলাদেশ। সুপার লীগের একটি ম্যাচ জিতলেই ১০ পয়েন্ট মিলে। সুপার লীগে একটি দল আটটি সিরিজে মোট ২৪টি ম্যাচ খেলবে। একটি সিরিজে ৩টি ওয়ানডে ম্যাচ থাকতে হবে। চারটি হোম ও চারটি এ্যাওয়ে সিরিজ খেলবে। প্রতিম্যাচে জেতার জন্য ১০ পয়েন্ট, টাই বা ম্যাচ পণ্ড হলে ৫ পয়েন্ট মিলবে। এভাবে সুপার লীগে খেলা দলগুলোর মধ্যে যে সাতটি দল পয়েন্ট তালিকায় সেরা সাতে থাকবে তারা সরাসরি বিশ্বকাপ খেলবে। বাকি দলগুলোকে বাছাইপর্ব খেলে বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। ২০২৩ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের আয়োজক ভারত দল এই র‌্যাঙ্কিং তালিকায় থাকলেও হিসেবে আসবে না। তারা স্বাগতিক হিসেবে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলবে। ভারত ছাড়া বাকি আর সাতটি দলসহ মোট আট দল বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার সুযোগ পাবে। ২০২২ সালের মে মাস পর্যন্ত খেলা হয়ে সুপার লীগ থেকেই তা নির্ধারণ হবে। এখন থেকে সুপার লীগের পয়েন্ট নিয়েই দলগুলোকে ভাবতে হচ্ছে। তাই প্রতিপক্ষ যেই হোক হারানোর ভাবনাই করতে হচ্ছে।

বাংলাদেশের জন্য প্রথম সুপার লীগের সিরিজটি সুবিধা হয়ে ধরা দিয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে। দুর্বল দল পেয়েছে। দলটির ১২ ক্রিকেটার করোনাভীতির জন্য খেলতে আসেননি। আনকোরা দল খেলতে এসেছে। তার প্রমাণ প্রথম ওয়ানডেতে মিলেছে। ৬ ক্রিকেটারের অভিষেক হয়েছে। তাতে বাংলাদেশেরই লাভ হচ্ছে। তিন ওয়ানডে জিতে গেলে ৩০ পয়েন্ট এই সিরিজ থেকেই মিলে যাবে। সে লক্ষ্যেই দল এগিয়ে চলেছে। বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল যেমন বলেছেন, ‘এমন একটা জায়গায় থাকতে চাই যেখান থেকে আমাদের (বিশ্বকাপের) বাছাইয়ে খেলতে হবে না।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলও তাই চায়। প্রধান কোচ ফিল সিমন্স যেমন বলেছেন, ‘আমরা আর বিশ্বকাপের প্লে-অফে যেতে চাই না। তাই আমাদের জন্য এই সিরিজটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এই সিরিজ দিয়েই আমরা সামনে এগিয়ে যেতে চাই। কারণ শুরুটা ভাল করতে পারলে বাকি পথটাও কিছুটা সহজ হবে আমাদের জন্য।’ কিন্তু সিমন্স ভাল করেই জানেন তাদের পথটা এই সিরিজে সহজ নয়। যদিও প্রথম ওয়ানডেতে বাংলাদেশ ব্যাটসম্যানদের রান তুলতে বেগ পেতে হয়েছে। সেটি উইকেটের আচরণের কারণে হয়েছে। বৃষ্টি এসেছে। আকাশ মেঘলা থেকেছে। রান খুব ভালভাবে তোলা যায়নি। কষ্ট করতে হয়েছে। এবার দ্বিতীয় ওয়ানডেতে সহজেই জয়ের আশা আছে। প্রথম ওয়ানডে থেকে পাওয়া অভিজ্ঞতা এখন দ্বিতীয় ওয়ানডেতে কাজে লাগাতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা। তা কাজে লাগিয়ে জিতে আজই সিরিজ জয় নিশ্চিত করে ফেলতে চায় বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580