মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৪:৫১ অপরাহ্ন

এ মাসেই শিক্ষা ঋণ পাচ্ছে জবি শিক্ষার্থীরা

অনলাইন ডেক্স :
  • প্রকাশিত সময় : বুধবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ২৮ পাঠক পড়েছে

করোনাকালীন অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চলমান রাখতে স্মার্টফোন কিনতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের চলতি মাসেই ইউজিসির সুদমুক্ত ঋন (সফটলোন) পাবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ ও হিসাব দফতরের পরিচালক অধ্যাপক ড. কাজী নাসির উদ্দীন। আজ বুধবার দৈনিক জনকণ্ঠকে এ তথ্য জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘এখন পর্যন্ত লোনের জন্য বিভিন্ন বিভাগ থেকে যাদের চূড়ান্ত তালিকা পাঠানো হয়েছে তাদেরকে এ মাসের মধ্যেই বিভাগে চেক পাঠিয়ে দেয়া হবে। আর যারা এখনো আবেদন করেনি তারা আবেদন করলে তাদের চেক পরবর্তীতে পাঠানো হবে।’

গত বছরের ৪ নবেম্বর এক সভায় করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের লক্ষ্যে মোবাইল কিনতে দেশের ৩৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৪১ হাজার ৫০১ জন অসচ্ছল শিক্ষার্থীকে বিনা সুদে আট হাজার টাকা করে ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। তখন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীদের পাঠানো আবেদনের প্রেক্ষিতে ইউজিসি ৩০০৬ শিক্ষার্থীকে প্রাথমিকভাবে লোন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

বিশ্ববিদ্যালরে অর্থ ও হিসাব দফতর থেকে জানা যায়, লোন প্রদানের জন্য চূড়ান্ত আবেদন চাওয়া হলেও সাড়া কম। এখন পর্যন্ত ২৪ বিভাগ থেকে প্রায় ৫০০ জনের মত শিক্ষার্থী লোন নিতে আবেদন করেছে। লোনের জন্য শিক্ষার্থীদের আবেদনের সাড়া কমের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরও সুনির্দিষ্টভাবে জানে বলে জানানো হয়।

গত ২৪ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার দফতর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে সফট লোনের অর্থ প্রদান করা হবে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয় ২৭ জানুয়ারির মধ্যে ডিভাইজ কেনার ভাউচার বিভাগীয় চেয়ারম্যানের কাছে জমা দিতে হবে। পরে এই বিজ্ঞপ্তিকে ঘিরে বিভিন্ন বিভাগ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে এক ধরনের ভুল বোঝাবুঝির ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন বিভাগ ও শিক্ষার্থীরা মনে করেন সফট লোনের টাকা পাওয়ার আগেই ডিভাইস কেনার ভাউচার বিভাগে জমা দিতে হবে। এ নিয়ে শিক্ষাথীদের মাঝে এক ধরনের হতাশা সৃষ্টি হয়। তাই অনেক শিক্ষার্থী আবেদন করতে অনীহা প্রকাশ করেন বলে জানা যায়।

বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা জানায়, করোনা ভাইরাসের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় অনলাইনে ক্লাস শুরু হলে নানাবিধ সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। এর মধ্যে অন্যতম ডিভাইস সংকট। মোবাইল কিনতে ইউজিসি থেকে সফটলোন প্রদানের কথা আমাদেরকে জানানো হয়। কিন্তু সফটলোন পেতে মোবাইল কেনার রশিদ আগে জমা দিতে হলে এই লোন আমরা কি করব। লোন পাওয়ার আগে মোবাইল কেনার জন্য টাকা কোথায় পাব বলে প্রশ্ন তোলেন তারা।

কয়েকটি বিভাগের সাথে যোগাযোগ করলে তারা জানান, প্রথমে বিজ্ঞপ্তি বুঝতে না পারায় সফটলোন নিয়ে আমাদের মাঝে এক ধরণের ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়েছিল। পরে প্রশাসনের সাথে কথা বলে বিষয়টি ঠিক করেছি।

বিজ্ঞপ্তি নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টির বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, এটা নিয়ে প্রথমে একটু ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছিল। আগে শিক্ষার্থীরা টাকা পাবে। এর পর ডিভাইজ কেনা বাবদ ভাউচার নিজ নিজ বিভাগের চেয়ারম্যানের কাছে জমা দিতে হবে।

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর অথবা অধ্যয়নকালীন চারটি কিস্তিতে বা এককালীন আসল টাকা শিক্ষার্থীরা পরিশোধ করতে পারবেন। তবে ঋণের সম্পূর্ণ অর্থ ফেরত না দেয়া পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থী নামে কোন ট্রান্সস্ক্রিপ্ট ও সাময়িক বা মূল সনদ ইস্যু করা হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580