শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১, ০২:০১ পূর্বাহ্ন

চলনবিলের দেশীয় শুটকি যাচ্ছে ভারতে

অনলাইন ডেক্স :
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ১ পাঠক পড়েছে

নাটোর চলনবিলের দেশীয় শুটকি মাছ যাচ্ছে ভারতে। এ অ লের দেশীয় শুটকির স্বাদে-ঘ্রাণে অতুলনীয় বেশি থাকায় কদর সারাদেশ জুরে। নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের পাশে সিংড়ার উপজেলার নিংগইন এলাকা শুটকির জন্য খ্যাত। ওই পথ অতিক্রমকালে শুটকির ঘ্রাণ নাকে এসে পড়ে। ৪ টি চাতাল গড়ে উঠেছে ওই এলাকায়। এ অ লের শুটকি দেশের মিটিয়ে বর্তমানে ভারতেও রপ্তানি করা হচ্ছে।
নাটোর চলনবিলে নিংগল এলাকার কোল ঘেঁষে গড়ে উঠেছে ওই শুটকি পল্লী। কাজ করছেন শত শত নারী-পুরুষ শ্রমিক। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চার চাতালের মাছ কাটা-বাছাইয়ের শ্রমিকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন। বাঁশের মাঁচায় ছৈই-এ ঢাকা চালার নীচে স্তুপ করে রাখা আধা-শুকনো দেশীয় চিংড়ি, টেংরা, পুঁটি, খলসে, বাতাসী, চেলা, মলা, টাকি, বাইম, শোল, বোয়াল, গজার, মাগুর, শিং, কৈসহ বাহারী দেশীয় মাছের শুটকি। কয়েক বছর আগের তুলনায় এবার শুটকির চাহিদা ও মাছের উৎপাদন বেশি। জানা যায়, চলনবিলে মাছের সংকট এবার কম, তবু শুটকি তৈরীতে খরচ হচ্ছে। মাছ বেশি বা কম হোক শ্রমিকদের নির্ধারিত টাকাই মজুরী দিতে হয়। সব মিলিয়ে শুটকি তৈরীতে লাভের মুখ দেখছে তারা। চলনবিলের মাছের পাশাপাশি দক্ষিণা ল থেকেও অল্পকিছু মাছ আসে ওই শুটকি পল্লীতে। এখানে প্রতিদিন ১০ থেকে ১৫ মণ শুটকি বিক্রি হয় । এছাড়া রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রাম, কুমিল্লা, দিনাজপুর, কক্রবাজার, রাজশাহী, কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকাররা এখান এসে শুটকি কিনে নিয়ে বিক্রি করেন। মাছভেদে প্রতিকেজি শুটকি দাম তিনশ’ টাকা থেকে পাচঁশ’ টাকা দরে খুচরা ও পাইকারী হিসেবে বিক্রি হয়। এখানে পুরুষ শুমিকের পাশাপাশি মহিলা শ্রমিকরাও কাজ করছেন। মহিলারা দিনপ্রতি ১৫০ টাকা মজুরীতে আধাবেলা মাছ কাটেন। কেউ বা মাছ কাটার পর কিছু বাড়তি টাকার বিনিময়ে চাতালের মাচাগুলোতে মাছগুলো রোদে শুকাতে দেন, দেন ঘন্টায় ঘন্টায় উল্টে-পাল্টে বা শুটকি বাছাই করেন। শীত মৌসুমে শুটকি পল্লীতে কাজ করেই তাদের বাড়তি জীবিকা। বিলের মাছগুলো কিনে বাইরের বাজারে চড় দামে বিক্রি করে। এবছর শুটকি চলে যাচ্ছে ভারতে সহ নানা দেশে।
উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লাহ ওয়ালীউল্লাহ বলেন, চলনবিলে মাছের উৎপাদন বিগত দিনের চেয়ে ভালো। গত বছর ২১০ মে: টন শুটকি উৎপাদন হয়েছে। এবার উৎপাদন আরো বাড়বে বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, শুটকি শ্রমিক ও মালিকদের আমরা প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করেছি। মৎস্য বিভাগ এ বিষয়ে সজাগ আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580