সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ০১:২০ পূর্বাহ্ন

নেতাকর্মীদের নামে মামলার প্রতিবাদে মধুখালীতে বিজয় মিছিল স্থগিত করলেন মেয়র

অনলাইন ডেক্স :
  • প্রকাশিত সময় : রবিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১ পাঠক পড়েছে

ফরিদপুরের মধুখালীতে পৌরসভার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের নামে মামলা ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিজয় মিছিল স্থগিত করলেন নব নির্বাচিত আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খন্দকার মোরশেদ রহমান লিমন।
শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মধুখালী কেন্দ্রীয় ঈদগাঁ ময়দান থেকে এ বিজয় মিছিলটি শুরু হওয়ার কথা ছিল।
স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাতে এক নম্বর ওয়ার্ডের পরাজিত কাউন্সিলর প্রার্থী ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নান্নু সেখ, ছয় নম্বর ওয়ার্ডের পরাজিত তিন কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা, মো. আকরাম হোসেন এবং ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সোহেল রানা ও তাদের সমর্থকরা প্রথমে নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে প্রতিবাদ জানায় পরে সেখান থেকে তাদের সরিয়ে দেয় পুলিশ।
এরপর রাত সাতটার দিকে বিক্ষোভকারীরা মধুখালী রেলগেট এলাকায় বাঁশ ফেলে ঢাকা-খুলনা মহা সড়ক অবরোধ করার চেষ্টা করে। মধুখালী থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, পুলিশ মহা-সড়ক থেকে বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে বিক্ষোভকারিরা পুলিশের উপর ইট ও পাথর নিক্ষেপ করে। এই সময় ওসিসহ দুই পুলিশ সদস্য সামান্য আহত হন। এ ঘটনায় মধুখালী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে পুলিশ বাদী হয়ে ৩১ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ২০০/৩০০ ব্যাক্তিকে আসামি করে বৃহস্পতিবার রাতেই মধুখালী থানায় পুলিশের উপর হামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মধুখালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রথিন্দ্রনাথ তরফদার বলেন, পুলিশ এ মামলার এজাহারভুক্ত চার আসামি নাজমুল খান (২৬), ফরহাদ শেখ (২৯), বাবলু খান (৩২) ও ইমন শেখকে (২২) গ্রেপ্তার করে শুক্রবার। শনিবার তাদের জেলার মূখ্য বিচারিক হাকিমের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে মধুখালী পৌরসভার নব-নির্বাচিত মেয়র খন্দকার মোরশেদ রহমান লিমন বলেন, ঘটনার সাথে মূলত যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা হোক। তবে পুলিশ উদ্দেশ্যমূলক ভাবে তার কয়েকজন কর্মীর নামে এজাহারে নাম দিয়েছে। যে সব কর্মীর নামে মামলা করা হয়েছে তারা কেউ ওই সময় ঘটনাস্থলে ছিল না। থানার ওসি কারো স্বার্থ রক্ষায় বিশেষ উদ্দেশ্যে এ মামলা করেছেন।
খন্দকার মোরশেদ রহমান বলেন, এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং বিজয় মিছিল হলে সেখানে অনবিপ্রেত ঘটনার সৃষ্টি করে আমাকেসহ আওয়ামীলীগে নেতাদের আসামী করতে পারে এ আশংকায় আমি বিজয় মিছিল স্থগিত করেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580