বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ১২:৫৬ পূর্বাহ্ন

মারপিট করে জমি দখল করে নেওয়ায় টেনে মাথাদিয়ে আত্মহত্যা

অনলাইন ডেক্স :
  • প্রকাশিত সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০
  • ১ পাঠক পড়েছে

এক ব্যক্তির হাত,পা ভেঙে জমি দখল করে নেওয়ায় রেললাইনে মাথা দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার (২১শে অক্টোবর) ২০ইং তারিখ। সকালে রাজশাহী মহানগরীর বিলশিমলা বন্ধগেট এলাকায় এসে তিনি আত্মহত্যা করেন। ওই ব্যক্তির নাম এমরুল হাসান (৪০)। তার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর এলাকায়। তার পিতার নাম ফিটু মিয়া। এমরুলের পকেট থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করেছে পুলিশ। সুইসাইড নোটে এমরুল লিখেছেন, জালাল, কালাম ও তাদের ছেলে রানা আমাকে মেরে হাত ও পা ভেঙে দিয়েছে। এই কষ্টে আমি জলে পুড়ে যাচ্ছিলাম। আমার বাড়ির সামনের রাস্তা দুইবার বন্ধ করে দেয়। এই চিরকুটে তিনি উল্লেখ করেছেন কে কে তার কাছে টাকা পাবে। মৃত্যুর পর কোন মোবাইল নম্বরে ফোন করে খবর দিতে হবে । তার মরদেহ কোন কবরস্থানে দাফন করা হবে সেটিও তিনি চিরকুঠে লিখেছেন। দুটি চিরকুটের একটিতে লিখেছেন, আমার জীবনে আমার আপনজন হলো আমার মেয়ে ও স্ত্রী। আমাকে আর ভাল লাগছে না। আমার লেখা কাগজ দুইটা আমার স্ত্রীকে দিবেন। কাগজের ফটোকপি পুলিশকে দিবেন। কাগজের মূল কপি দুইটা আমার স্ত্রীকে দিবেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ৯’৩০ টায় সময়। এমরুল ক্র্যাচে ভর দিয়ে রেললাইনের পাশ ধরে হাঁটছিলেন। ওই সময় রাজশাহী থেকে রহনপুরগামী একটি কমিউটার ট্রেন আসে। ট্রেনটি খুব কাছে চলে এলেই এমরুল রেললাইনে মাথা পেতে দেন। এতে তার মাথা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। রেললাইনের পাশে পড়ে থাকে তার দেহ ও ক্র্যাচ। নিহত এমরুলের স্ত্রী আয়েশা বেগম জানান, গত সোমবার (১৯শে অক্টোবর) চিকিৎসার জন্য তারা রাজশাহী এসেছেন। নগরীর তেরখাদিয়া এলাকায় তার বোনের বাড়িতে ওঠেন। সকালে এমরুল তাকে জানিয়ে ছিলেন, তিনি চা’পান করতে বের হচ্ছেন। পরে তিনি রেললাইনে মাথা পেতে আত্মহত্যা করেন। পুলিশ চিরকুটে থাকা তার বোনের নম্বরে ফোন করে বিষয়টি অবহিত করেন। আয়েশা জানান, প্রায় পাঁচ মাস আগে জালাল ও কালামেরা তার জমি দখল করেছেন। এমরুল বাধা দিতে গেলে পিটিয়ে তার হাত ও পা ভেঙে দেয়। এমরুলের বৌ জানান, অমানুষিক নির্যাতন করে আমার স্বামীর পা ভেঙে দেওয়ায় তিনি ক্র্যাচে ভর দিয়ে চলতেন। জমি দখলের বিষয়ে মামলা করলেও হাত ও পা ভাঙার কারণে তিনি দৌড়া ঝাপ করতে পারতেন না। এ কারণে তিনি জমি উদ্ধার করতে পারেননি। এসমস্ত ক্ষোভে আমার স্বামী আত্মহত্যা করেছেন। মহানগরীর রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাহাদাৎ হোসেন খাঁন জানান, রেলওয়ে থানা পুলিশ নিহত মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় রেলওয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হবে বলেও জানান ওসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580