সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন

সম্মেলনের ১১ মাস পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা

অনলাইন ডেক্স :
  • প্রকাশিত সময় : মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর, ২০২০
  • ১ পাঠক পড়েছে

সম্মেলনের ১১ মাস পর পূর্ণাঙ্গ কমিটি পেল আওয়ামী লীগের পাঁচ সহযোগী সংগঠন। যুবলীগ ছাড়া সম্মেলন হওয়া আওয়ামী লীগের অন্য সহযোগী সংগঠনগুলোর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল সোমবার কৃষক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, মত্স্যজীবী লীগ ও মহিলা শ্রমিক লীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর আগে রবিবার রাতে ঘোষণা করা হয় জাতীয় শ্রমিক লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি।
গত বছরের নভেম্বরে এই সংগঠনগুলোর জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংগঠনগুলো তাদের পূর্ণাঙ্গ কমিটির খসড়া জমা দেয়। সেগুলো যাচাইবাছাই শেষে কিছু সংশোধনী এনে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটিতে আছেন যারা:

গত নভেম্বরে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনে নির্মল রঞ্জন গুহকে সভাপতি ও সাবেক ছাত্রনেতা এ কে এম আফজালুর রহমান বাবুকে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এতে সহসভাপতি হয়েছেন গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, ম. আবদুর রাজ্জাক, প্রকৌশলী তানভির শাকিল জয়, নির্মল চ্যাটার্জি, কাজী শহিদুল্লাহ লিটন, মজিবর রহমান স্বপন, শামীম শাহরিয়ার, দেবাশীষ বিশ্বাস, সুব্রত পুরকায়স্ত, আবদুল আলীম ব্যাপারী, সালেহ মোহাম্মদ টুটুল, মো. নাসির, ফারুক আমজাদ খান, কাজী মোয়াজ্জেম হোসেন, কাজী সাহানারা ইয়াসমিন, মাহফুজা বেগম সাইদা, আবদুস সালাম, মালিক ঘোষ ও ডা. আসাদুজ্জামান খান রিন্টু। দুটি সহসভাপতি পদ ফাঁকা রাখা হয়েছে।

চারটি যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদের একটি ফাঁকা রাখা হয়েছে। বাকি তিন জন হলেন মোবাশ্বের চৌধুরী, এ কে এম আজিম ও খায়রুল হাসান জুয়েল। ৯ সাংগঠনিক সম্পাদক পদে এসেছেন নাফিউল করিম নাফা, আবদুল্লাহ আল সায়েম, আ ফ ম মাহবুবুল হাসান, আরিফুর রহমান টিটু, ফরিদুর রহমান ইরান, মো. শাহজালাল মুকুল, নুরুল ইসলাম রাজা, মেহেদী হাসান মোল্লা, আবিদ আল হাসান।

কমিটির অন্যরা হলেন—রফিকুল ইসলাম বিটু, আজিজুল হক আজিজ, কে এম মনোয়ারুল ইসলাম বিপুল, রফিকুল ইসলাম আবুল, ড. ওয়াহিদুজ্জামান টিপু, ড. মো. বদরুজ্জামান ভুঁইয়া, আকতার হোসেন ভুঁইয়া মিরন, আলী আবরার, আবুল কালাম আজাদ হাওলাদার, এস এম সিহাবুজ্জামান, শফিকুল ইসলাম, আহাম্মদ উল্লাহ জুয়েল, কোবাদ হোসেন, হাসান মতিউর রহমান, সারোয়ার মোর্শেদ আকন্দ জাস্টিজ, ছালমা হাই টুনি, সাইফুর রহমান ছিন্টু, এম এ হান্নান, সুমন জাহিদ, শাহিনুর ইসলাম, মেহেদী হাসান বিটু, ওবায়দুল হক খান, ফয়সল আহসান উল্লাহ, জুয়েল আহমেদ, ইকবাল হোসেন, মোস্তফা কামাল মনি, সাকিল আহমেদ জুয়েল, আনোয়ার পারভেজ টিংকু, নজিবুর রহমান নিপু, আনোয়ারুল আজিম সাদেক, ইফতেখার হোসেন পলাশ, আশীষ কুমার সিংহ, মাহাবুবুর রহমান হেলাল, রাহুল বড়ুয়া, সাখাওয়াত হোসেন কবির, মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব, মনির হোসেন ও রাহুল দাস, খন্দকার তৌহিদুল ইসলাম সোহাগ, জিসান মাহমুদ ও ব্যারিস্টার জুনায়েদ আহম্মেদ হাসিব, বরদা ভূষণ লিটন, ডা. জয় হাজরা, মোখলেচুর রহমান সুমন, মুর্তুজা হায়দার শরীফ, রাজিব মজুমদার রাজু, আফসারুজ্জামান, উর্মি ঢালী, শ্যামল গোস্বামী, এস এম মনিরুল ইসলাম মনি, ওয়াহেদুল ইসলাম সজীব, আমিনুর রহমান সোহেল, মেহেদী শিকদার, তানভির আকতার শিপার, জসিম উদ্দিন মাদবর, ফারুক হোসেন মুন্না, আবদুল্লাহ হেল কাফি, ডা. উম্মে সালমা মুনমুন, তারেক মাহমুদ চৌধুরী পাপ্পু, আফরোজ হাবিব, জামিল আহমেদ, দেলোয়ার হোসেন এবং শাহ আলম সিকদার জয়। এছাড়া ৫০ জন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হিসেবে জায়গা পেয়েছেন।

কৃষক লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা:

গত বছরের ১৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত কৃষক লীগের সম্মেলনে কৃষিবিদ সমীর চন্দকে সভাপতি এবং উম্মে কুলসুম স্মৃতিকে সাধারণ সম্পাদক করে দুই সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর প্রায় ১১ মাস পরে গতকাল সংগঠনটির ১১১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে থাকা ১৬ জন সহসভাপতি হলেন—শরীফ আশরাফ আলী, মাহাবুব উল আলম (শান্তি), শেখ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম, আশালতা বৈদ্য, এস এম আকবর আলী চৌধুরী, সংসদ সদস্য হোসনে আরা, মিয়া আবদুল ওয়াদুদ, মো. আব্দুল লতিফ তারিন, আলহাজ মোস্তফা কামাল চৌধুরী, কৃষিবিদ ড. মো. নজরুল ইসলাম, ডি এম জয়নুল আবেদীন, এম এ মালেক, মো. আবুল হোসেন, কৃষিবিদ সাখাওয়াত হোসেন সুইট, অ্যাডভোকেট মো. এ এফ এম মো. রেজাউল করিম হিরন, মাসুদুল ইসলাম।

যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বিশ্বনাথ সরকার বিটু, অ্যাডভোকেট শামীমা শাহরিয়ার, এ কে এম আজম খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জসীম উদ্দিন, আসাদুজ্জামান বিপ্লব, নূরে আলম সিদ্দিকী হক, অধ্যাপক মো নাজমুল হক পানু ও মো. হিজবুল বাহার রানা। অর্থ সম্পাদক মো. নাজির মিয়া। এছাড়া অন্যরা হলেন—মো. জিয়াউল হক নাছির, মো. জহির উদ্দিন লিমন, শেখ ফারুক আহমেদ, মো. রেজাউল করিম রেজা, শামীমা সুলতানা, মো. আহসান হাবীব, মো. শাহিনুর রহমান, ডা. মো. মজিবুর রহমান মিয়াজী, মো. শামসুদ্দিন আল আজাদ, মো. আজমল হোসেন, তারিফ আনাম, মো. আব্দুর রাশেদ খান, এফতেখার হোসেন দুলু, মো. রফিকুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম খান, রুমানা আলী টুসি, অ্যাডভোকেট উম্মে হাবিবা, মো. আমিরুল ইসলাম, মোসা. ঘালিমা রহমান, মো. মোশারেফ হোসেন আলমগীর, মো মিরুল ইসলাম, মো. আলফাজ উদ্দিন, মো. ইসাহাক আলী সরকার, রেজাউল হক রাসেল, মোহাম্মদ আরমান চৌধুরী, অ্যাডভোকেট রাবেয়া বেগম, নুরুল ইসলাম বাদশা, সৈয়দ শওকত হোসেন সানু, রাশিদা চৌধুরী, নিউ নিউ খেইন, খান মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম লিটু, সামিউল বাসিক বিন হোসেন, শেখ জামাল হোসেন। কার্যকরী কমিটির ৪৯ জন সদস্যের নাম ঘোষণা করা হবে।

মত্স্যজীবী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা:

২০১৯ সালের নভেম্বরে মত্স্যজীবী লীগের সম্মেলনে সাইদুর রহমান সভাপতি ও শেখ আজগর লস্কর সম্পাদক হন। এর প্রায় ১১ মাস পর ১১১ সদস্যবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে সহসভাপতি পদে মো. আবুল বাশার, আব্দুল গফুর চৌকিদার, মুহাম্মদ আলম, গিয়াস উদ্দিন খান, শাহ আলম, আনোয়ারুল ইসলাম, মোহাম্মদ ইউনুছ, এস এম নাছির উদ্দিন মানিক, মঞ্জুর কাদের মোহন, প্রফেসর মোছা. মমতাজ খানম, আতিকুর রহমান খান নান্নু, এহসানুল হক চৌধুরী মিলন, নাসরিন আকতার, আব্দুল বাতেন অশ্রু ও সাজ্জাদুল হক লিকু শিকদার জায়গা পেয়েছেন। এছাড়া যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে মো. আব্দুল আলীম, রফিকুল ইসলাম খান, ফিরোজ আম্মেদ তালুকদার, অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. নাছির উল্লাহ নাছির কমিটিতে স্থান পেয়েছেন।

মহিলা শ্রমিক লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যারা

সম্মেলনের পরে সুরাইয়া আক্তার সভাপতি ও কাজী রহিমা আক্তার সাথী সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। প্রায় এক বছর পর ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে তাদের সঙ্গে কার্যকরী সভাপতি হিসেবে রয়েছেন শামসুন নাহার। ১১ জন সহসভাপতি হলেন—সুলতানা আনোয়ারা, সৈয়দা খালেদা বেগম, খালেদা আফরোজ বিউটি, আফরোজা ফাতেমা, হেলেনা করিম, রোজিনা পারভীন, অ্যাডভোকেট নাজমা বেগম, মেহেরুন্নেসা (বিউটি), পুষ্প আক্তার (মায়া) ও নাসরিন আক্তার। তিন জন যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হলেন সৈয়দা খায়রুন নাহার (তামরিন), জিনাত রেহানা নাসরিন ও সৈয়দা রোকেয়া আফরোজা শিখা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর
Design and Developed by DONET IT
SheraWeb.Com_2580